2024-05-30 09:49:36 pm

চাইলেন খাবার, পেলেন ঘর

www.focusbd24.com

চাইলেন খাবার, পেলেন ঘর

০১ ডিসেম্বার ২০২২, ১৬:৪০ মিঃ

চাইলেন খাবার, পেলেন ঘর

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কক্ষের বাইরে ঘোরাঘুরি করছিলেন মনোয়ারা বেগম (৫১) নামে এক নারী। সিসিটিভি ক্যামেরায় তা নজরে আসে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার। পরে তাকে ডেকে নেওয়া হয় কক্ষের ভেতরে। ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে এক সন্তানসহ না খেয়ে মানবেতর জীবন যাপনের গল্প শোনান তিনি। একদিকে খাবারের কষ্ট অপরদিকে অন্যের জায়গায় বসবাসের কথা ইউএনওকে জানান।

মনোয়ারা বেগমের এমন কষ্টের গল্প শুনে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন কক্ষে থাকা সকলে। তাৎক্ষণিকভাবে শুকনা খাবার ও দু-একদিনের মধ্যে সরকারি আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর দেওয়ার আশ্বাস দেন ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মো. শামসুজ্জামান। বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) এই ঘটনা ঘটে।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার চিলারং ইউনিয়নের ভেলাজান গ্রামের মৃত কফিলউদ্দিনের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম। স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে অন্যের বাড়িতে কাজ করে এক ছেলেকে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন তিনি।

মনোয়ারা বেগম ঢাকা পোস্টকে বলেন, ‘মেলা দিন থেকে আসিবা যাহেচু। আইজকা আসিনু তাও কাঁপিতে কাঁপিতে। রুম ভিতরত যাইয়া মোর কষ্টের কথালা কহিনু। মোর কাথা শুনে খাবারের একটা বস্তা দিল। ফের ঘর দিবা চাহিল কয়েকদিনের মইধ্যে। ঠান্ডার দিন খুব কষ্ট হচে মোর। এলা ঘরটা দিলে একটু হইলেও সুখ পাম। ইউএনও স্যার দিবা চাহিল ঘর।’ 

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মো. শামসুজ্জামান ঢাকা পোস্টকে বলেন, অনেকক্ষণ থেকে তিনি আমার কক্ষের বাইরে ঘোরাঘুরি করছিলেন। সেটি সিসিটিভি ক্যামেরার মাধ্যমে আমার নজরে আসে। আমি দেখার পর রুমে ডেকে নিই। তারপর তিনি তার কষ্টের কথা জানান। খাবার ও ঘরের অভাবে তিনি মানবেতর জীবন যাপন করছেন। তাৎক্ষণিকভাবে তাকে শুকনা খাবার দেওয়া হয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যে তাকে সরকারি আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর উপহার দেওয়া হবে। সেই সঙ্গে আমাদের পক্ষ থেকে যা সুযোগ সুবিধা দেওয়া যায় তা অব্যাহত থাকবে।


উপদেষ্টা সম্পাদক: ডি. মজুমদার
সম্পাদক: মীর আক্তারুজ্জামান

সর্বস্বত্ব: এমআরএল মিডিয়া লিমিটেড
ঢাকা অফিস: মডার্ণ ম্যানসন (১৫ তলা), ৫৩ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০
ময়মনসিংহ অফিস: হাসনাইন প্লাজা (দ্বিতীয় তলা), ৭ মদন বাবু রোড, ময়মনসিংহ-২২০০
সেলফোন: ০৯৬১১-৬৪৫২১৫, ০৯৬৯৭-৪৯৭০৯০ ই-মেইল: jagrota2041@gmail.com
ফোন :
ইমেইল :