, ৮ আশ্বিন ১৪৩০ অনলাইন সংস্করণ

আগেই ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হয়েছিল মার্কেটটিকে

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

আগেই ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হয়েছিল মার্কেটটিকে

ফায়ার সার্ভিস জানিয়েছেন, রাজধানীর মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেটটি আগে থেকেই ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা ছিল। অতিরিক্ত ভোল্টেজের বিদ্যুৎ সেখানে ব্যবহার হয়ে আসছিল। আর এ কারণেই তার লোড না নেওয়ায় বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের সৃষ্টি হয়েছে, নাকি কেউ আগুন ধরিয়ে দিয়েছে এসব বিষয় খতিয়ে দেখছে ফায়ার সার্ভিস। এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে বলে জানিয়েছেন এই ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেটে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক (অপারেশন অ্যান্ড মেনটেইন্যান্স) লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম এসব কথা বলেন। মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম বলেন, খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। তবে ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই মার্কেটের চার ভাগের তিন ভাগে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এই আগুন যেন মার্কেট থেকে আশপাশের ভবনে ছড়াতে না পারে সে বিষয়টি নজরে রেখে আমরা আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করি এবং আগুন নিয়ন্ত্রণে আমাদের বেশ সময় লেগে যায়।

তিনি বলেন, দ্রুত আমাদের পানি শেষ হয়ে যায়। পরবর্তী সময়ে আমরা ওয়াসাসহ অন্যান্য সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় করে পানি সরবরাহের বিষয়টি নিশ্চিত করি। আগুনের সূত্রপাত কোনো মুদির দোকান থেকে, নাকি কেউ লাগিয়ে দিয়েছে, না বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে, নাকি সিগারেট থেকে এসব বিষয় দেখতে তদন্ত কমিটি করে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।‌ তাজুল ইসলাম আরো বলেন, কোন দোকান থেকে আগুন লেগেছে তা তদন্ত সাপেক্ষে বলা সম্ভব।

  • সর্বশেষ - মহানগর