, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ অনলাইন সংস্করণ

অবৈধ মজুতদারদের গণধোলাই দেওয়া উচিত : প্রধানমন্ত্রী

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

অবৈধ মজুতদারদের গণধোলাই দেওয়া উচিত : প্রধানমন্ত্রী

‘সরকারকে বিপদে ফেলার জন্য যারা অবৈধভাবে পণ্য মজুত করে বাজার অস্থিতিশীল করতে চায়, তাদেরকে গণধোলাই দেওয়া উচিত’ বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘এর আগে দেখলাম পিঁয়াজের খুব অভাব। পরে দেখা গেলো বস্তাকে বস্তা পিঁয়াজ পানিতে ফেলে দিচ্ছে। এ লোকগুলোকে কী করা উচিত, সেটা আপনারাই বলেন। এদের-তো গণধোলাই দেওয়া উচিত। কারণ আমরা সরকার কিছু করলে বলবে, সরকার করেছে। পাবলিক যদি প্রতিকার করে, তাহলে সব থেকে ভালো, কেউ কিছু বলবে না।’

শুক্রবার সকালে মিউনিখ সিকিউরিটি সম্মেলন নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি এবং দুর্ভিক্ষের সম্ভাবনা নিয়ে সাংবাদিক মঞ্জুরুল আহসান বুলবুলের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচন ঠেকানোর পরিকল্পিত চক্রান্ত ছিল। নির্বাচন ঠেকাতে না পেরে দ্রব্যমূল্য বাড়ানোর চক্রান্ত করে সরকারকে বিপদে ফেলতে চাওয়া হয়েছিল।’

দুর্ভিক্ষ নিয়ে প্রশ্নোত্তরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ষড়যন্ত্র ছিল। ষড়যন্ত্র তো আছেই। ষড়যন্ত্র প্রত্যেকবারই হচ্ছে। বার বার করেছে। নির্বাচন যাতে না হয়, বিরাট চক্রান্ত ছিল। ২৮ অক্টোবরের ঘটনা আপনারা জানেন। এগুলো হঠাৎ করে নয়, পরিকল্পিতভাবে করেছে। নির্বাচন যখন বানচাল করতে পারবে না, বুঝে গেছে। তাই তারা পরিকল্পনা করেছে, দ্রব্যমূল্য বাড়বে আর তারা আন্দোলন করবে।’

  • সর্বশেষ - জাতীয়