, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ অনলাইন সংস্করণ

শত্রুতার জেরে পাভেলকে হত্যা, গ্রেফতার ৩

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

শত্রুতার জেরে পাভেলকে হত্যা, গ্রেফতার ৩

গাইবান্ধার সদর উপজেলায় নিখোঁজের তিন দিন পর পরিত্যক্ত এক বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে শফিকুর রহমান পাভেল (৩৭) নামের এক যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধারের ঘটনায় এক নারীসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত একটি ধারালো দা উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন-গাইবান্ধা সদর উপজেলার রঘুনাথপুর এলাকার মৃত মন্টু মিয়ার ছেলে হাবিবুর রহমান হাবি (৪৪), জবিউল ইসলামের ছেলে সুজন মিয়া (৩৬) ও শাহ আলমের স্ত্রী অমেলা বেগম (৪২)।

বুধবার দুপুর ১২টার দিকে গাইবান্ধা পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অর্থ ও প্রশাসন) (পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত) মো. ইবনে মিজান। এর আগে, মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার বল্লমঝাড় ইউনিয়নের রঘুনাথপুর এলাকা থেকে পাভেলের লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত শরিফুল ইসলাম পাভেল বল্লমঝাড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুস সামাদ আকন্দের ছোট ছেলে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেন, পূর্ব শত্রুতার জেরে পলাতক আসামি শাহিন কৌশলে শফিকুর রহমান পাভেলকে ফোন করে গত শনিবার (৯ মার্চ) সন্ধ্যায় তার বাড়িতে ডেকে নেয়।

সেখানে জড়িত সকল আসামিদের যোগসাজশে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা দিকে দেশীয় অস্ত্র ধারালো দা দিয়ে পাভেলের মাথায়, পায়ের উভয় পাশে এবং গোড়ালিতে কুপিয়ে হত্যা করে। এরপর তার লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে একই এলাকার সিরাজুল ইসলামের পরিত্যক্ত বাড়ির সেপটিক ট্যাংকের ভেতরে লুকিয়ে রাখে।

পরে শফিকুর রহমান পাভেলের লাশ উদ্ধার করে সদর থানা পুলিশ। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। পরে নিহতের ভাই বাদী হয়ে গাইবান্ধা সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইবনে মিজান বলেন, আসামিরা হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে এবং হত্যাকাণ্ডের বিস্তারিত ও অজ্ঞাতনামা পলাতক আসামিদের নাম ঠিকানা প্রকাশ করেছে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে গাইবান্ধার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপস) মো. ইব্রাহিম হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বি-সার্কেল) মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মাসুদ রানা, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সেরাজুল হক, পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) মো. তারিকুল ইসলামসহ বিভিন্ন পদমর্যাদার পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

  • সর্বশেষ - অন্যান্য