, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ অনলাইন সংস্করণ

৭ অক্টোবর থেকে ৬০০ সেনা নিহত, জানাল ইসরায়েল

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

  প্রকাশ : 

৭ অক্টোবর থেকে ৬০০ সেনা নিহত, জানাল ইসরায়েল

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় হামাসের বিরুদ্ধে প্রায় ছয় মাস ধরে নির্বিচারে আগ্রাসন চালাচ্ছে ইসরায়েল। গত বছরের ৭ অক্টোবর ইসরায়েলের অভ্যন্তরে হামলা চালায় ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাস। এর জবাবে ওই দিন থেকেই গাজায় হামলা শুরু করে ইসরায়েলি বাহিনী। চলমান এই যুদ্ধে ৬০০ ইসরায়েলি সেনা নিহত হয়েছে। এর মধ্যে ইসরায়েলের অভ্যন্তরে হামাসের হামলায় নিহত সেনারাও রয়েছে।

সোমবার ইসরায়েল প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ) এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে। আইডিএফ জানিয়েছে, গাজায় গত ২৪ ঘণ্টায় অভিযানের সময় আরও এক ইসরায়েলি সেনা নিহত হয়েছে। ২০ বছর বয়সী ওই সেনার নাম নাদাভ কোহেন। এ নিয়ে গাজায় গত ৭ অক্টোবর থেকে এখন পর্যন্ত ৬০০ ইসরায়েলি সেনা নিহত হয়েছে। ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে হামাসের হামলায় প্রায় ১২০০ ইসরায়েলি নিহত হয়। এছাড়াও দুই শতাধিক ইসরায়েলিকে জিম্মি করে গাজায় নিয়ে গেছে হামাস যোদ্ধারা।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, যুদ্ধে ইসরায়েলি হামলায় ইতোমধ্যে প্রায় ৩৩ হাজার ফিলিস্তিনির মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছে আরও প্রায় ৮০ হাজার মানুষ। জাতিসংঘের মতে, গাজায় ইসরায়েলি আগ্রাসনে খাদ্য, বিশুদ্ধ পানি এবং ওষুধের তীব্র সংকটের মধ্যে ভূখণ্ডের ৮৫ শতাংশ বাসিন্দা অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত হয়েছে। সেই সঙ্গে অঞ্চলটির ৬০ শতাংশ অবকাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত বা ধ্বংস হয়ে গেছে।

জাতিসংঘ জানিয়েছে, দীর্ঘ এ সময় ধরে চলা সংঘাতের কারণে মানবিক সংকটে দিন পার করছেন ফিলিস্তিনিরা। এছাড়াও খাবার, পানি, ওষুধ ও প্রয়োজনীয় মানবিক সহায়তার অভাবে উপত্যকাটির ২৩ লাখেরও বেশি বাসিন্দা চরম ক্ষুধা ও ভয়াবহ অপুষ্টিতে ভুগছেন। গত সপ্তাহে জাতিসংঘের কর্মকর্তারা সতর্ক করে জানান, গাজায় দুর্ভিক্ষ দেখা দিতে পারে এবং এটি হবে মানবসৃষ্ট। ইসরায়েল গাজায় আন্তর্জাতিক ত্রাণ সহায়তা প্রবেশে বাধা দেওয়ায় এই পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে।

  • সর্বশেষ - আন্তর্জাতিক