, ১১ আষাঢ় ১৪৩১ অনলাইন সংস্করণ

নিরাপদ সড়কের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ চুয়েট শিক্ষার্থীদের

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

নিরাপদ সড়কের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ চুয়েট শিক্ষার্থীদের

চট্টগ্রামে বাস ও মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে চুয়েটের দুই শিক্ষার্থী মৃত্যুর পর নিরাপদ সড়কসহ সাত দফা দাবিতে আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে চুয়েট ক্যাম্পাসের সামনে গাছ ফেলে চট্টগ্রাম-কাপ্তাই মহাসড়ক অবরোধ করা হয়। এতে কাপ্তাই সড়কে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এছাড়াও টায়ার পুড়িয়ে বিক্ষোভ করতে থাকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। আন্দোলন চলাকালীন সাত দফা দাবি উত্থাপন করে শিক্ষার্থীরা। এসব দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত সকল প্রকার একাডেমিক কার্যক্রম (ক্লাস ও পরীক্ষা) বর্জনের ঘোষণা দেন তারা।

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো পলাতক চালক ও তার সহযোগীকে দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা, সব সুযোগ–সুবিধাসংবলিত ক্যাম্পাসে আধুনিক চিকিৎসাকেন্দ্র স্থাপন, আধুনিক সরঞ্জামসহ অ্যাম্বুলেন্স–সুবিধা দেওয়া, রাস্তার মাথা এলাকা থেকে কাপ্তাই পর্যন্ত চার লেন মহাসড়ক করা, প্রতিটি বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার কাগজপত্র ও চালকদের লাইসেন্স নিয়মিত যাচাই করা, ছাত্রকল্যাণ পরিষদকে জবাবদিহির আওতায় আনা এবং ছাত্র প্রতিনিধি দল গঠন করা, নিহত ও আহত ব্যক্তিদের পরিবারকে যথোপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়া।

এ সব দাবি লিখিতভাবে আদায় না হওয়া পর্যন্ত সকল প্রকার শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ থাকবে এবং আন্দোলন চলবে বলে জানান শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনের পাশাপাশি দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় মাঠে নিহত শিক্ষার্থীদের গায়েবানা জানাজা আদায় করা হয় এবং দুপুর ৩টায় শোকসভা ও দোয়া মাহফিলে অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে শিক্ষার্থীদের।উল্লেখ্য, গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর সংবাদে চুয়েট শিক্ষার্থীরা শাহ আমানত পরিবহনের তিনটি বাস ভাঙচুর এবং ১টি বাসে আগুন দেন। পরবর্তীতে ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

  • সর্বশেষ - শিক্ষাঙ্গন