, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ অনলাইন সংস্করণ

নিউইয়র্কে সুচিত্রা সেন আন্তর্জাতিক বাংলা চলচ্চিত্র উৎসব অনুষ্ঠিত

  বিনোদন ডেস্ক

  প্রকাশ : 

নিউইয়র্কে সুচিত্রা সেন আন্তর্জাতিক বাংলা চলচ্চিত্র উৎসব অনুষ্ঠিত

নিউইয়র্কে দু'দিনব্যাপী ‘সুচিত্রা সেন আন্তর্জাতিক বাংলা চলচ্চিত্র উৎসব’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২০-২১ এপ্রিল এই আয়োজনে বর্তমান সময়ের ছোট ও বড় পর্দার চলচ্চিত্র অঙ্গনের প্রিয় মুখগুলোর বিপুল সমাগম ঘটেছিল। জড়ো হয়েছিলেন বাঙালি সংস্কৃতির পৃষ্ঠপোষক আর নেপথ্য সংগঠকরাও। প্রবাস প্রজন্মে বাংলা সংস্কৃতির ফল্গুধারা প্রবাহিত করতে নিরন্তরভাবে কর্মরতরাও ছিলেন বাংলা সিনেমা জগতের সর্বকালের জনপ্রিয় এই নায়িকার স্মরণ-সমাবেশে। বিপুল অর্থব্যয়ের এই আয়োজনটি টিকিটহীন হওয়ায় প্রবাসীরাও অকৃপণচিত্তে সাড়া দিয়েছিলেন।

আর এ কারণেই শেষ সন্ধ্যার অ্যাওয়ার্ড বিতরণের জমকালো অনুষ্ঠানে স্থান সংকুলান না হওয়ায় ফিরতে হয়েছে অনেককে। বাংলাদেশ ও ভারতের জনপ্রিয় তারকাদের অংশগ্রহণে বেশ কটি পর্ব ছাড়াও দুদিনে লাগাতারভাবে তিন অডিটরিয়ামে ৩৯টি ছবি প্রদর্শিত হয়। অশ্লীলতার ছাপ নেই এমন ছবি সকল প্রবাসীকে আপ্লুত করেছে। বাছাইকৃত ছবির মধ্য থেকেই সেরা অভিনেতা-অভিনেত্রী এবং নির্মাতাগণকে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। সবকিছু ঘিরে জ্যামাইকা পারফর্মিং আর্টস সেন্টারটি বাংলা আর বাঙালিদের পদচারণায় মুখরিত ছিল হিমেল হাওয়া সত্বেও।

উপস্থাপক ছিলেন শাহরিয়ার নাজিম জয়। উপস্থিত ছিলেন রেখা আহমেদ, লুৎফুন্নাহার লতা, নওশীন, রুমানা, বন্যা মির্জা, তমা মির্জা, মোনালিসা প্রমুখ। ঢাকা ও কলকাতার চঞ্চল চৌধুরী, বাধন, ঋতুপর্ণা সেন, নানজিবা খান, রেশমি মিত্র, হৃদি হক প্রমুখ ছিলেন সরব। সমাপনী পর্বে বাংলা চলচ্চিত্র অঙ্গনের খ্যাতিমান অভিনেতা, অভিনেত্রী, পরিচালক, প্রযোজকদেরকে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। পাশা সিনেমার নায়ক হিসেবে অভিনয়কারি নিউইয়র্কের রাজুব ভৌমিককে ‘প্রবাসের সেরা অভিনেতা’র পুরস্কার হস্তান্তর করেন একসময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রেখা আহমেদ ও লুৎফুন্নাহার লতা।

একুশে পদকপ্রাপ্ত লেখক বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. নুরুন্নবীর লেখা বই ‘বুলেট অব দ্য সেভেন্টি ওয়ান : অ্যা ফ্রিডম ফাইটারস স্টোরি’ অবলম্বনে প্রামাণ্যচিত্র ‘ড. নূরন্নবী : আজীবন মুক্তিযোদ্ধা’  নির্মাণকারি নাদিম ইকবালকে সেরা পরিচালকের পুরস্কার হস্তান্তর করেন রেখা আহমেদ। ডক্যুফিচার ক্যাটাগরিতে ‘অবাঞ্ছিত জমজ’ ছবির নির্মাতা নানজিবা খানকে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। ছবিটি নির্মাণকালে নানজিবার বয়স ছিল ১৮ বছররেও কম। এটি নানজিবাকে হস্তান্তর করেন যৌথভাবে রুমানা ও বন্যা।

চলচ্চিত্র জগতে শক্তিমান অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ এবং অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকেও বিশেষ সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। এ দুটি হস্তান্তর করেন এই উৎসবের অন্যতম পৃষ্টপোষক শাহনেওয়াজ ও আকাশ রহমান। এ সময় মঞ্চে ছিলেন বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা মৌসুমী।কলকাতা ও ঢাকার আরো কয়েকজনকে প্রদান করা হয় সম্মাননা ক্রেস্ট। ক্রেস্টগুলো এতটাই নিম্নমানের ছিল যে, হস্তান্তরের আগেই তার কয়েকটি ভেঙ্গে যায় এবং তা স্বাভাবিকভাবে গ্রহণের অভিপ্রায়ে অনুষ্ঠানের উপস্থাপক জয় বিষয়টিকে কৌতুকের মধ্যে ডুবিয়ে রাখতে চান। আবার এমনও ঘটেছে, ক্রেস্ট প্রদানকারির নাম ঘোষণা করা হয়েছে অথচ ক্রেস্ট পাওয়া যাচ্ছে না। এ ধরনের হ-য-ব-র-ল অবস্থার মধ্যে ‘সুচিত্রা সেন আন্তর্জাতিক বাংলা চলচ্চিত্র উৎসব’ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

  • সর্বশেষ - বিনোদন