, ৭ আষাঢ় ১৪২৮ অনলাইন সংস্করণ

ডোমিঙ্গোকে বলির পাঠা বানানো ঠিক হবে না : সুজন

  স্পোর্টস ডেস্ক

  প্রকাশ : 

ডোমিঙ্গোকে বলির পাঠা বানানো ঠিক হবে না : সুজন

শ্রীলঙ্কা সফরের টেস্ট সিরিজে ১-০ ব্যবধানে হেরে মঙ্গলবার দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। সপ্তাহ তিনেকের মধ্যে আবার এই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই নামতে হবে দেশের মাঠে। তবে এবার মিশন তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। সে জন্য এরই মধ্যে ২০ সদস্যের প্রাথমিক দলও ঘোষণা করা হয়েছে।

এদিকে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, শিগগিরই দলের বর্তমান হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোর ব্যাপারে বড় কোনো সিদ্ধান্ত নেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। জাতীয় দলের সাম্প্রতিক ব্যর্থতার কারণে বরখাস্ত করা হবে ডোমিঙ্গোকে- এমন ফিসফাস শোনা যাচ্ছে ক্রিকেট অঙ্গনে।

তবে এ দক্ষিণ আফ্রিকান কোচকে বলির পাঠা বানাতে নারাজ বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক ও শ্রীলঙ্কা সফরের টিম লিডার খালেদ মাহমুদ সুজন। তার মতে, চেষ্টার কমতি রাখেননি ডোমিঙ্গো। মূলত ভাগ্যের কারণেই ফলাফল আসেনি।

বুধবার জনপ্রিয় ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে সুজন বলেছেন, ‘রাসেল ডোমিঙ্গোকে বলির পাঠা বানানো উচিত হবে না। ভালো-খারাপ যা-ই হয়েছে, এর সব দায় কোচকে দেয়া ঠিক নয়। সে একটা বড় দলেরও কোচ ছিল। তার চেষ্টায় কোনো কমতি ছিল না।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমি বলব, রাসেল খানিকটা দুর্ভাগা যে এটা অনেকবার হয়ে গেছে। তবে এখনই কোনোকিছু বলার সময় আসেনি। আমি ওর সঙ্গে একটা সিরিজে কাজ করলাম। নিজের মূল্যায়ন থেকে বলতে পারি, ও নিজের সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করছে।’

গত কয়েক বছরে হেড কোচ থেকে শুরু ম্যানেজার, টিম লিডারসহ বেশ কিছু দায়িত্ব নিয়ে বাংলাদেশ দলের সঙ্গে কাজ করেছেন সুজন। সেই অভিজ্ঞতা থেকে তিনি মনে করেন, ডোমিঙ্গোর উচিত খেলোয়াড়দের সঙ্গে যোগাযোগ দক্ষতাটা আরও বাড়ানো এবং ভাষাগত সমস্যা কমিয়ে আনা।

সুজনের ভাষ্য, ‘প্রথমে আমাদের পরিকল্পনা আমরা ছেলেদের বলি এবং সেটা ধারাবাহিকভাবে ডোমিঙ্গোকেও বলতে হয় যে কী করতে হবে। পরে ডোমিঙ্গোর সেটা বুঝে কাজ করতে হয়। সে এখন দক্ষিণ আফ্রিকায় কাজ করছে না। বাংলাদেশে কাজের ধরন বেশ আলাদা।’

‘এখানে ড্রেসিংরুম থেকে ছেলেদেরকে বারবার তাদের দায়িত্ব সম্পর্কে মনে করিয়ে দিতে হয়। অন্যান্য শীর্ষ দেশগুলোতে বারবার মনে করিয়ে দিতে হয় না। কারণ তাদের কাছ থেকে আশা থাকে যে, পরিকল্পনা বুঝিয়ে দেয়ার পর সেটা ঠিকঠাক বাস্তবায়ন করবে। আমি এ বিষয়টা নিয়ে কাজ করেছি। যেকোনো সম্পর্ক তৈরি হতে সময় লাগে। আমি বাংলাদেশ ক্রিকেট সম্পর্ক যতটুকু জানি, তা ওকে বোঝানোর চেষ্টা করেছি।’

এসময় ডোমিঙ্গোকে বরখাস্ত করার গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়ে সুজন বলেন, ‘আমার মনে হয় না, এখানে (বোর্ডে) ডোমিঙ্গোকে বাদ দেয়ার কোনো আলোচনা হয়েছে। আমাদের বুঝতে হবে যে, মন চাইলেই যে কাউকে আমরা কোচ হিসেবে নিয়োগ দিতে পারব না। এখানে অনেক বিষয় বিবেচনায় রাখতে হয়।’

‘আমাদেরকে এটা বুঝতে হবে যে, দলের সাফল্য-ব্যর্থতার জন্য কোচই একমাত্র দায়ী নন। কারণ মাঠে ক্রিকেটারদের খেলতে হয়। তাই এ বিষয়টা গুরুত্বপূর্ণ যে, কোচকে দোষারোপ না করে কীভাবে আরও ভালো পরিকল্পনা করা যায় এবং নিজেদের উন্নতি ত্বরান্বিত করা যায়।’

  • সর্বশেষ - খেলাধুলা