, ৩ আষাঢ় ১৪২৮ অনলাইন সংস্করণ

ঈদ ‘শেষ’ সাকিব-মোস্তাফিজের

  স্পোর্টস ডেস্ক

  প্রকাশ : 

ঈদ ‘শেষ’ সাকিব-মোস্তাফিজের

আইপিএল বন্ধ হওয়ার পর চার্টার্ড ফ্লাইটে তারা দেশে ফিরেছেন ৬ মে বিকেলে। কিন্তু যেহেতু ভারত থেকে ফেরা, তাই আর নিজ নিজ গন্তব্যে যাওয়া হয়নি সাকিব আল হাসান ও মোস্তাফিজুর রহমানের। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বেঁধে দেয়া কঠোর কোয়ারেন্টাইনে আছেন তারা।

সাকিব আছেন গুলশানের ফোর পয়েন্টস শেরাটন হোটেলে আর সস্ত্রীক আইপিএল খেলতে যাওয়া মোস্তাফিজ তার সহধর্মিনীকে নিয়ে অবস্থান করছেন হোটেল সোনারগাঁও প্যান প্যাসিফিকে। ভারত থেকে চার্টার্ড ফ্লাইটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছে আনুষ্ঠানিকতা শেষ করেই সরাসরি দু’জন দুই সপ্তাহের কোয়ারেন্টাইনে চলে গেছেন।

হোক পাঁচ তারকা হোটেল, তারপরও কোয়ারেন্টাইন বলে কথা! মোস্তাফিজের সঙ্গে তবু স্ত্রী আছেন, সাকিবকে সময় কাটাতে হচ্ছে একদম একা। রমজান মাস, ক’দিন পরই ঈদ। সবাই নিজ নিজ পরিবারের সান্নিধ্যে থাকতে দেশের এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্তে ছুটছেন। সেখানে বাবা-মা ছাড়া (স্ত্রী ও সন্তানরা যুক্তরাষ্ট্রে) সাকিব সম্পূর্ণ একা হোটেল কক্ষে। মোস্তাফিজও সাতক্ষীরায় নিজ বাড়িতে যেতে পারছেন না।

ভারত থেকে আসায় কড়া কোয়ারেনটাইন আইনে পড়ে গেছেন টাইগার দলের এই দুই তারকা ক্রিকেটার। তাদের দুজনের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন শেষ হতে হতে ঈদ পার হয়ে যাবে। তার মানে সাকিব আর মোস্তাফিজের এবার পরিবারের সাথে ঈদ করা হবে না। হোটেল রুমেই জেলখানার মতো পরিবেশে কাটাতে হবে ঈদের দিনটাও।

এদিকে জানা গেছে, সাকিব ও মোস্তাফিজকে এ দীর্ঘ সময়ের কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্ত করতে উদ্যোগী হয়েছে বিসিবি। খোদ বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন নাকি চেষ্টা করছেন সাকিব ও মোস্তাফিজকে বিশেষ ব্যবস্থায় কোয়ারেন্টাইন মুক্ত করতে।

এ নিয়ে বিসিবি প্রধান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের সাথেও কথা বলেছেন। একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, বিসিবি সভাপতি সাকিব ও মোস্তাফিজের কোয়ারেন্টাইনে থাকার সময় কমিয়ে আনার অনুরোধ করেছেন।

তবে যেহেতু ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা ফেরত যাত্রীদের ব্যাপারে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় তথা সরকারে কড়াকড়ি আইন প্রণয়ন করা আছে, তাই এখন পর্যন্ত সাকিব ও মোস্তাফিজের কোয়ারেন্টাইন কমানো সম্ভব হয়নি। তবে এখনও কথাবার্তা চলছে। এ বিষয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের অনুমতির চেষ্টা চলছে। তাই বিশেষ ব্যবস্থায় শেষ পর্যন্ত ঈদের আগে তারা কোয়ারেন্টাইন মুক্ত হলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

শেষ পর্যন্ত বিশেষ ব্যবস্থায় মুক্তি না মিললে সাকিব-মোস্তাফিজকে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে ১৮ মে পর্যন্ত। সেখান থেকে তারা জাতীয় দলের শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের অনুশীলনে যোগ দেবেন।

বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জাগো নিউজকে জানিয়েছেন, ‘সরকার কোয়ারেন্টাইন আইন পরিবর্তন করলে কিংবা সরকারি আদেশে তাদের কোয়ারেন্টাইনের মেয়াদ কমিয়ে আনা হলে ভিন্ন কথা। না হয় সাকিব ও মোস্তাফিজের ১৮ মে পর্যন্ত কোয়ারেন্টাইনেই থাকার কথা।’

এ নিয়ে জাগো নিউজের সাথে আলাপে বিসিবি পরিচালক ও ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি চেয়ারম্যান আকরাম খান জানান, ‘ওরা ১৮ মে-এর পর কোয়ারেন্টাইন মুক্ত হয়েই জাতীয় দলের প্র্যাকটিসে যোগ দিবে।’

আগামী ২৩ মে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডে। ধারণা করা হচ্ছে, ১৮ মে সাকিব ও মোস্তাফিজ কোয়ারেন্টাইন মুক্ত হয়ে ২০ মে থেকে অনুশীলন শুরু করবেন।

  • সর্বশেষ - খেলাধুলা