, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ অনলাইন সংস্করণ

ফোডেনের হ্যাটট্রিকে অ্যাস্টন ভিলাকে উড়িয়ে দিলো ম্যান সিটি

  স্পোর্টস ডেস্ক

  প্রকাশ : 

ফোডেনের হ্যাটট্রিকে অ্যাস্টন ভিলাকে উড়িয়ে দিলো ম্যান সিটি

আক্রমণের তোড়ে যেন অ্যাস্টন ভিলাকে ভাসিয়ে দিতে চাইল ম্যানচেস্টার সিটি। তৈরি করল একের পর এক সুযোগ। জালের দেখাও পেল নিয়মিত। টানা দুই ড্রয়ের হতাশা ঝেড়ে ফেলে পেল দুর্দান্ত জয়। চমৎকার এক হ্যাটট্রিকে যে জয়ের নায়ক ফিল ফোডেন। ঘরের মাঠে বুধবার (০৩ এপ্রিল) রাতে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে ৪-১ গোলে জিতেছে পেপ গুয়ার্দিওলার দল। শিরোপাধারীদের অন্য গোলটি করেছেন রদ্রি। পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ চারের দলের বিপক্ষে এটি ছিল সিটির টানা তৃতীয় ম্যাচ। লিভারপুলের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র করার পর আর্সেনালের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে দলটি। এবার আক্রমণাত্মক ফুটবলে ভিলাকে উড়িয়ে দিল তারা।

৬৭ শতাংশ সময় বল দখলে রেখে গোলের জন্য ২৫টি শট নেয় সিটি। এর ১১টি ছিল লক্ষ্যে। এর বিপরীতে ভিলার আট গোলের তিনটি ছিল লক্ষ্যে।  চেনা আঙিনায় প্রথম সুযোগ পায় সিটি। প্রতিপক্ষের সমর্থকদের দুয়ো শোনা জ্যাক গ্রিলিশ তৃতীয় মিনিটে বাঁদিক দিক থেকে খুঁজে নেন হুলিয়ান আলভারেসকে। আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারের শট কাঁপায় পার্শ্ব জাল। ভিলাকে প্রবল চাপে রেখে তাদের অর্ধ থেকেই উঠতে দিচ্ছিল না সিটি। এর সুফল দলটি প্রায় দ্রুতই। রদ্রির চমৎকার ফিনিশিংয়ে এগিয়ে যায় একাদশ মিনিটে। ডান দিক থেকে জেরেমি ডকুর চমৎকার ক্রসে ছুটে গিয়ে বুলেট গতির শটে জাল খুঁজে নেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার। সমতা ফেরাতে খুব বেশি সময় নেয়নি ভিলা। সপ্তদশ মিনিটে প্রতি আক্রমণ থেকে জালের দেখা পান কলম্বিয়ান ফরোয়ার্ড হুন দুরান। তার গোলে বড় অবদান আছে মর্গ্যান রজার্সেরও।

২৪তম মিনিটে সুযোগ আসে গ্রিলিশের সামনে। ভিলা থেকে সিটিতে আসা ইংলিশ মিডফিল্ডার ভলি রাখতে পারেননি লক্ষ্যে। ১৩ মিনিট পর আলভারেসের শট রুখে দিয়ে সমতা ধরে রাখেন রবিন ওলসেন। ৪১তম মিনিটে আর পারেননি আর্জেন্টাইন বিশ্বকাপজয়ী গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেসের অনুপস্থিতিতে পোস্টে দাঁড়ানো ওলসেন। চমৎকার ফ্রি কিকে জাল খুঁজে নেন ফোডেন। কিছুই করার ছিল না গোলরক্ষকের। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে নিজেদের অর্ধেই গুটিয়ে ছিল ভিলা। ধৈর্য নিয়ে তাদের প্রতিরোধ ভাঙার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিল সিটি। ফোডেন ও রিকো লুইস ভীতি ছড়ালেও গোলরক্ষকের খুব একটা পরীক্ষা নিতে পারছিলেন না। এর মাঝেই প্রতি-আক্রমণে ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার দগলাস লুইসের দূরপাল্লার শট ঠেকিয়ে ব্যবধান ধরে রাখেন সিটি গোলরক্ষক স্তেফান ওর্তেগা।

স্রেফ ১ গোলের ব্যবধানে এগিয়ে থাকায় কেভিন ডে ব্রুইনে, আর্লিং হলান্ডদের নামানোর কথা ভাবছিলেন গুয়ার্দিওলা। স্বাগতিক সমর্থকদের প্রবল করতালির মধ্যে ওয়ার্ম আপ করছিলেন তারকা ফুটবলাররা। তবে এর মধ্যেই জাদুকরী ফিনিশিংয়ে দলকে ধরা ছোঁয়ার বাইরে নিয়ে যান ফোডেন। ডে ব্রুইনে, হলান্ডদের আর মাঠে নামার প্রয়োজন পড়েনি। ৬২তম মিনিটে রদ্রির কাছ থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সের মাথা থেকে নিখুঁত শটে জাল খুঁজে নেন ফোডেন। পোস্টে লেগে ভেতরে যাওয়া বল ঠেকানোর কোনো সুযোগই ছিল না ভিলা গোলরক্ষকের। স্কোরলাইন হয়ে যায় ৩-১। 

আট মিনিট পরেই হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন ইংলিশ তারকা। ফ্রি কিকের আবেদন করেছিলেন তিনি। সেটা নাকচ করে দেন রেফারি। বল ছিল আলভারেসের পায়ে, তিনি খুঁজে নেন ফোডেনকে। ২৫ গজ দূর থেকে আচমকা শটে বল জালে পাঠান তিনি। চলতি মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে সিটির হয়ে এটি ফোডেনের ২১তম গোল। বাকি সময়ে ব্যবধান আরও বাড়ানোর জন্য চেষ্টা করে যায় সিটি। কিন্তু আর জালের দেখা পায়নি তারা।  ৩০ ম্যাচে ৬৭ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরেই রয়েছে সিটি। এক ম্যাচ কম খেলা লিভারপুল গোল পার্থক্যে এগিয়ে আছে দুই নম্বরে। এদিনই আরেক ম্যাচে লুটন টাউনকে ২-০ গোলে হারানো আর্সেনাল ৬৮ পয়েন্ট নিয়ে আপাতত আছে শীর্ষে।

  • সর্বশেষ - খেলাধুলা