, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ অনলাইন সংস্করণ

অনুরূপচন্দ্র সেন ও যোগেশচন্দ্র ঘোষের প্রয়াণ

  ফিচার ডেস্ক

  প্রকাশ : 

অনুরূপচন্দ্র সেন ও যোগেশচন্দ্র ঘোষের প্রয়াণ

মানুষ ইতিহাস আশ্রিত। অতীত হাতড়েই মানুষ এগোয় ভবিষ্যৎ পানে। ইতিহাস আমাদের আধেয়। জীবনের পথপরিক্রমার অর্জন-বিসর্জন, জয়-পরাজয়, আবিষ্কার-উদ্ভাবন, রাজনীতি-অর্থনীতি-সমাজনীতি একসময় রূপ নেয় ইতিহাসে। সেই ইতিহাসের উল্লেখযোগ্য ঘটনা স্মরণ করাতেই জাগো নিউজের বিশেষ আয়োজন আজকের এই দিনে।

৪ এপ্রিল ২০২২, সোমবার। ২১ চৈত্র ১৪২৮ বঙ্গাব্দ।

ঘটনা
১৮৯৮- বাংলা চলচ্চিত্রের জনক হীরালাল সেন কর্তৃক চলচ্চিত্র প্রদর্শনী : স্থান ক্লাশিক থিয়েটার, কলকাতা।
১৯৪৯- ন্যাটো প্রতিষ্ঠিত হয়।
১৯৭২- বাংলাদেশকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।
১৯৭৯- পাকিস্তানি প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জুলফিকার আলী ভুট্টোর ফাঁসি। তিনি পাকিস্তান পিপলস পার্টির প্রধান ছিলেন। হত্যার ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার অভিযোগে ১৯৭৯ সালে সামরিক আদালত তাকে মৃত্যুদন্ডে দণ্ডিত করে।

জন্ম
১৮৮৯ - ভারতীয় কবি, সাহিত্যিক, প্রাবন্ধিক, নাট্যকার এবং সাংবাদিক মাখনলাল চতুর্বেদী।
১৯২৯ - অভিনেতা আবুল খায়ের।
১৯৩২ - অ্যান্থনি পারকিন্স, মার্কিন অভিনেতা।
১৯৮৭ - সামি খেদিরা, জার্মান ফুটবলার।
১৯৮৯ - স্টিভেন ফিন, ইংরেজ ক্রিকেটার।

মৃত্যু
১৯২৮- ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের একজন ব্যক্তিত্ব ও অগ্নিযুগের শহীদ বিপ্লবী অনুরূপচন্দ্র সেন। অবিভক্ত বাংলার (বর্তমানে বাংলাদেশ) চট্টগ্রামের নোয়াপাড়ার এক দরিদ্র পরিবারে। মাস্টারদা সূর্য সেন ও তিনি দুজনেই চট্টগামের নোয়াপাড়ার বাসিন্দা ছিলেন। তারা ছিলেন পরস্পরের সমবয়েসী বন্ধু।দক্ষিণ চব্বিশ পরগণা জেলার বুড়ুল হাইস্কুলে শিক্ষকতাকালীন নানা সামাজিক কাজে নিজেকে ও ছাত্রদের জড়িয়ে রাখতেন। ছাত্র ছাত্রীরা তার উৎসাহে হাতে লেখা জাতীয়তাবাদী 'সাধনা' পত্রিকা বের করে। অস্ত্র প্রশিক্ষন, লাঠি খেলা, দেহচর্চা ইত্যাদির গোপন আখড়া গড়ে তুলে স্থানীয় ছাত্র-যুবদের কাছে তিনি হয়ে উঠেছিলেন এক অনুকরণীয় ব্যক্তিত্ব।

১৯৫০- বাঙালি চিকিৎসক, স্বাধীনতা সংগ্রামী এবং লেখক সুন্দরীমোহন দাস।
১৯৭১- প্রখ্যাত আয়ুর্বেদ শাস্ত্র বিশারদ ও শিক্ষাবিদ যোগেশচন্দ্র ঘোষ। তিনি সাধনা ঔষধালয়ের প্রতিষ্ঠাতা। ১৮৮৭ সালে শরীয়তপুরের গোঁসাইরহাট গ্রামে জন্ম তার। তার গবেষণা ও সাধনার ফলে বাংলাদেশে আয়ুর্বেদ চিকিৎসাপদ্ধতি ও ঔষধ প্রস্তুত প্রণালী আধুনিক মানে উন্নীত হয়। তিনি রোগ-ব্যাধির কারণ ও লক্ষণ, আয়ুর্বেদ চিকিৎসার তত্ত্ব এবং এর ব্যবহার পদ্ধতি সম্পর্কে বহু বই লিখে গেছেন। ১৯৭১ সালে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর গুলিতে নিহত হন।

২০০৪- বাংলার প্রখ্যাত চলচ্চিত্র অভিনেতা ও পরিচালক সুখেন দাস।

  • সর্বশেষ - ফিচার