, ১২ কার্তিক ১৪২৮ অনলাইন সংস্করণ

পুলিশের কলার চেপে ধরায় ইউপি মেম্বার আটক

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

পুলিশের কলার চেপে ধরায় ইউপি মেম্বার আটক

সিলেট-তামাবিল মহাসড়কে অবৈধভাবে ব্যাটারিচালিত টমটম ছাড়িয়ে নিতে না পেরে পুলিশের কলার চেপে ধরার অভিযোগে জৈন্তাপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য (মেম্বার) মো. ইসমাইল আলীকে (৩৩) আটক করেছে পুলিশ।

ইসমাইল জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত আলীর ছোটভাই। বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে জৈন্তাপুর থানায় এ ঘটনা ঘটে।

রাত ৯টার দিকে জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগির আহমদ আটকের তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, আপাতত তাকে আটক করা হয়েছে। পরে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক দিয়ে চলাচলকারী কয়েকটি টমটম জব্দ করে জৈন্তাপুর থানা পুলিশের একটি দল। সন্ধ্যায় জব্দ করা টমটমগুলো জৈন্তাপুর থানা প্রাঙ্গণে রাখা হয়। রাত ৮টার দিকে একটি টমটম ছাড়িয়ে নিতে থানায় যান মো. ইসমাইল হোসেন। সেখানে কর্তব্যরত পুলিশের দুজন সদস্যের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হওয়া। এক পর্যায়ে এক পুলিশ সদস্যের কলার চেপে ধরেন ইসমাইল।

প্রত্যক্ষদর্শী দুই ব্যক্তি বলেন, থানায় গিয়ে প্রথমে একটি টমটম ছাড়িয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন ইসমাইল। পুলিশ সদস্যরা রাতে টমটম ছেড়ে দিতে রাজি না হওয়ায় ইসমাইল নিজেকে ইউপি সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা লিয়াকত আলীর ছোটভাই পরিচয় দেন। পুলিশ তাতে কর্ণপাত না করায় ক্ষুব্ধ হয়ে ইসমাইল পুলিশ সদস্যদের দেখে নেবেন বলে হুমকি দেন। এ নিয়ে পুলিশের সঙ্গে তার ফের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে একজন পুলিশ সদস্যের কলার চেপে ধরেন ইসমাইল।

এ বিষয়ে জৈন্তাপুর থানার ওসি গোলাম দস্তগির আহমদ বলেন, একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটে গেছে। এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ইসমাইল নামের একজনকে আটক করা হয়েছে।

  • সর্বশেষ - সাক্ষাতকার