, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহ সদর আসনে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে গণমানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক ‘ট্রাক’

  বিশেষ প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

ময়মনসিংহ সদর আসনে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে  গণমানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক ‘ট্রাক’

ময়মনসিংহ-৪ সদর আসনে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে সর্বস্তরের গণমানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক ট্রাক। ভোটারদের ভাবনা, বিপুল সংখ্যক সমর্থকের গণসংযোগ ও প্রচার-প্রচারণায় নতুন মাত্রা পেয়েছে জনগণ মনোনীত স্বতন্ত্র প্রার্থী আলহাজ্ব মোঃ আমিনুল হক শামীমের ‘ট্রাক’ প্রতীক। হেভিওয়েট এই প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিত করতে নির্বাচনী মাঠ কাঁপাচ্ছেন ৫ শতাধিক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। তারা ট্রাক প্রতীকের পক্ষে নিরলস গণসংযোগ ও প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। মাঠে আছেন আওয়ামী লীগ, সহযোগী ও অঙ্গসংগঠনের একাংশের নেতা-কর্মী ও সমর্থক, ব্যবসায়ী ও শ্রমিকদের বড় অংশ, জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজসহ বিশাল সমর্থক গোষ্ঠি। শামীমের ‘ট্রাক’ প্রতীকের গণজোয়ার ধরে রাখতে সমর্থকরা নতুন নতুন কৌশলে প্রচারণা চালাচ্ছেন। নির্বাচনী গান ও কথা নিয়ে প্রচার কাজে অংশ নিয়েছেন সাংস্কৃতিক কর্মীরা। অপরদিকে ভোট প্রদানের আগ্রহে দিন কাটাচ্ছেন ট্রাক প্রতীকের সমর্থকরা।

শক্তিশালী স্বতন্ত্র প্রার্থী আলহাজ্ব মোঃ আমিনুল হক শামীম ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের অন্যতম সহ-সভাপতি। তিনি ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই’র সাবেক সহ-সভাপতি। বর্তমানে ময়মনসিংহ চেম্বার অফ কমার্স এণ্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি। ট্রাক প্রতীকের প্রার্থী শামীম দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শিল্প ও পর্যটন উদ্যোক্তা। সরকারের উচ্চ পর্যায়ে রয়েছে তার ব্যাপক গ্রহণযোগ্যতা। নিজের অবস্থান, বলয় ও ভোট ব্যাংক থাকার কারণে বিপুল সংখ্যক সমর্থকের অনুরোধে তিনি ময়মনসিংহ-৪ সদর আসনে এমপি প্রার্থী হয়েছেন। মূলত তার কারণেই সর্বস্তরের ভোটারদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া পড়েছে। সোমবার পর্যন্ত আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সাথে স্বতন্ত্র প্রার্থীর হাড্ডাহাড্ডি অবস্থা থাকলেও মঙ্গলবার তার পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে। নানান কারণে ‘ট্রাক’ প্রতীকের পক্ষে সৃষ্টি হয়েছে গণজোয়ার।

হেভিওয়েট স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিনুল হক শামীমের ট্রাক প্রতীকের পক্ষে অবস্থান নিয়ে নির্বাচনী মাঠ কাঁপিয়ে বেড়ানো ময়মনসিংহ জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের ডজনখানেক নেতা মঙ্গলবার রাতে অভিন্ন বক্তব্যে বলেন, আমাদের আশা-আকাঙ্ক্ষার বাতিঘর জননেত্রী শেখ হাসিনা সবার জন্য এবারের সংসদ নির্বাচন উন্মুক্ত করে দিয়েছেন। নির্ভয়ে পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার পরামর্শ দিয়েছেন। এ কারণেই আমরা জনগণের পছন্দের প্রার্থী শামীমের ‘ট্রাক’ প্রতীকের পক্ষে মাঠে নেমেছি। নেতারা বলেন, সদর আসনের সর্বস্তরের ভোটারদের পাশাপাশি আওয়ামী লীগ, সহযোগী ও অঙ্গসংগঠনের উল্লেখযোগ্য নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা আমাদের সাথে রয়েছেন। আমরা ৭ জানুয়ারি ট্রাক প্রতীকের বিজয় নিশ্চিত করে ঘরে ফিরবো ইনশাআল্লাহ। নেতারা আরো বলেন, আমিনুল হক শামীমের গ্রহণযোগ্যতা, সাংগঠনিক দক্ষতা, বলিষ্ঠ ভূমিকা, বিচক্ষণতা ও মানুষের পাশে থাকার কারণে আমরা ‘ট্রাক’ প্রতীকের পক্ষ নিয়েছি।

নির্লোভ ও পরোপকারী আমিনুল হক শামীম নানান কারণেই গুরুত্বপূর্ণ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে বহুবার বিদেশ ভ্রমণ করেন দেশের অন্যতম এই শিল্প ও পর্যটন উদ্যোক্তা। তাকে বিজয়ী করতে সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে চলছে তোড়জোড়। বিবেচনা করা হচ্ছে জনপ্রিয় প্রার্থী হিসেবে। সম্মানজনক ভোট ব্যবধানে ট্রাক প্রতীকের প্রার্থী শামীম বিজয়ী হবেন বলে পর্যবেক্ষক মহলের ধারণা। অবহেলিত সদর উপজেলাবাসীর উন্নয়নে সর্বস্তরের ভোটাররা এরই মধ্যে ‘ট্রাক’ প্রতীকের পক্ষে একজোট হয়েছেন। ভোটারদের মতে, কাঙ্খিত উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন করে সর্বস্তরের মানুষের স্বপ্ন পূরণ করতে পারবেন একমাত্র আমিনুল হক শামীম। গ্রহণযোগ্য প্রার্থী হিসেবে ভোটাররা তাকেই বেছে নিয়েছেন। তারা জনগণের মনোনীত স্বতন্ত্র প্রার্থী শামীমের ট্রাক প্রতীকের বিজয় নিশ্চিত করার অঙ্গিকার করেছেন।


  • সর্বশেষ - ইলেকশন স্পেশাল