, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ অনলাইন সংস্করণ

শেরপুরে একই পরিবারের চার শিক্ষার্থীসহ সাতজন করোনা আক্রান্ত

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

শেরপুরে একই পরিবারের চার শিক্ষার্থীসহ সাতজন করোনা আক্রান্ত

শেরপুরে চার শিক্ষার্থীসহ একই পরিবারের সাত জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) জেলা সদর হাসপাতালে দেওয়া করোনার নমুনায় তাদের ফল পজিটিভ আসে। ওইদিন জেলায় মোট ১৩৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৫ জনের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকালে জেলা সিভিল সার্জনের কার্যালয়ের প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা গেছে।

আক্রান্তরা হলেন- শেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুব্রত কুমার দে’র মা আরতি দে, স্ত্রী ফাল্গুনী মজুমদার, মেয়ে ঐশ্বর্য দে, ছেলে অর্ণব দে, সুব্রত’র ভাবি লুনা মিত্র মজুমদার, ভাতিজি অর্চিতা দে ও ভাতিজা সৌম্যদ্বীপ দে। তারা শেরপুর শহরের গোপালবাড়ী এলাকার যৌথ পরিবারের সদস্য। গত ১২ সেপ্টেম্বর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর জেলায় শিক্ষার্থীর করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা এটিই প্রথম।

সুব্রত কুমারের মেয়ে ঐশ্বর্য শেরপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, ছেলে অর্ণব নবারুণ পাবলিক স্কুল, ভাতিজা সৌম্যদ্বীপ সরকারি ভিক্টোরিয়া একাডেমির শিক্ষার্থী। আর ভাতিজি অর্চিতা উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় পাস করে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এছাড়া সুব্রত’র স্ত্রী ফাল্গুনী মজুমদার সদর উপজেলার গনই ভরুয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

সুব্রত কুমার দে তার পরিবারের সদস্যদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আক্রান্ত ব্যক্তিরা বাসায় আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এ বিষয়ে শেরপুরের সিভিল সার্জন ডা. এ কে এম আনওয়ারুর রউফ বলেন, বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে আরও সচেতন থাকার অনুরোধ জানানো হবে।

এদিকে, বুধবার জেলায় নতুন করে আরও তিনজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ সময় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৯০টি। জেলায় এখন পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৭৩৭ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৫৮৭ জন। আর মারা গেছেন ৯০ জন।

  • সর্বশেষ - মহানগর