, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ অনলাইন সংস্করণ

গাইবান্ধায় চোর চক্রের ৬ সদস্য গ্রেফতার

  নিজস্ব প্রতিবেদক

  প্রকাশ : 

গাইবান্ধায় চোর চক্রের ৬ সদস্য গ্রেফতার

গাইবান্ধায় ইজিবাইক চোর চক্রের ৬ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ। এসময় চুরি যাওয়া ইজিবাইকের ৪টি ব্যাটারি উদ্ধার করা হয়। রবিবার সন্ধ্যায় অভিযানে নেতৃত্বদানকারী গোবিন্দগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) রায়হানুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতাররা বগুড়ার গাবতলী উপজেলার কৃষ্ঞচন্দ্রপুর এলাকার আলম মিয়ার ছেলে সোহান মিয়া (২৫), শিবগঞ্জ উপজেলার গনেশপুর এলাকার বাদশা মিয়ার ছেলে সুমন মিয়া (৩২), ডাবুইর এলাকার শহিদুল ইসলামের ছেলে সাহাব উদ্দিন (৩৫) একই এলাকার মৃত রমজান আলীর ছেলে পায়েল মিয়া (২০), নাট মরিচা এলাকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে নাজমুল হোসেন (৩৩) ও বাড়ামদেউল এলাকার আমজাদ হোসেনের ছেলে আনোয়ার হোসেন (২৯)।

এর আগে শনিবার দিবাগত রাতে অভিযান চালিয়ে তাদের বগুড়া থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। অভিযানে নেতৃত্বদানকারী গোবিন্দগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) রায়হানুজ্জামান জানান, গত ৯ ফেব্রুয়ারি খোরশেদ আলম বেপারী তার ইজি বাইক নিয়ে ভাড়া খাটার জন্য বাড়ি থেকে বাহির হয়। ওইদিন দুপুর পৌনে ১টার দিকে খোদ গোপালপুর গ্রামের চৌমাথা জামে মসজিদের সামনে তার ইজিবাইক লক করে মসজিদে নামাজ আদায় করতে যায়। নামাজ শেষে মসজিদ থেকে বাহির হয়ে দেখে তার ইজিবাইকটি চুরি হয়ে গেছে। পরে খোরশেদ আলম বেপারী গোবিন্দগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

এরই ধারাবাহিকতায় গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশের একটি টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় শনিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে বগুড়ার মোকামতলা এলাকায় অভিযান চালিয়ে আসামি সোহান মিয়াকে গ্রেফতার করে। সোহানের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী শিবগঞ্জের আলীয়ার হাট থেকে অপর আসামি সুমন মিয়া ও সাহাব উদ্দিনকে, নাট মরিচা এলাকা হতে চোরাই ইজি বাইকের ২টি ব্যাটারি উদ্ধারসহ আনোয়ার হোসেনকে এবং ওই রাতে একই এলাকা থেকে আরো ২টি ব্যাটারি জব্দসহ আসামি পায়েল ও নাজমুলকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) রায়হানুজ্জামান বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার আসামিরা ইজিবাইক চুরির সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। তারা ইজিবাইকটির অন্যান্য যন্ত্রাংশ খুলে বিভিন্ন যায়গায় বিক্রিও করেছে। গ্রেফতার আসামিদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

  • সর্বশেষ - মিডিয়া